কাঁচা ছোলা খাওয়ার উপকারিতা

কাঁচা ছোলার গুণ সম্পর্কে আমরা সবাই কমবেশি জানি। ছোলায় বিভিন্ন প্রকার ভিটামিন, খনিজ লবণ, ম্যাগনেশিয়াম ও ফসফরাস রয়েছে। উচ্চমাত্রার প্রোটিনসমৃদ্ধ খাবার ছোলা। কাঁচা, সেদ্ধ বা তরকারি রান্না করেও খাওয়া যায়। কাঁচা ছোলা ভিজিয়ে, খোসা ছাড়িয়ে, কাঁচা আদার সঙ্গে খেলে শরীরে একই সঙ্গে আমিষ ও অ্যান্টিবায়োটিক গঠন হয়। আমিষ মানুষকে শক্তিশালী ও স্বাস্থ্যবান বানায়। আর অ্যান্টিবায়োটিক যেকোনো অসুখের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করে। তাই আমরা কাঁচা ছোলা খাওয়ার উপকারিতা জেনে নিই

ছোলা খাওয়ার উপকারিতা-

ডালঃ- ছোলা পুষ্টিকর একটি ডাল। এতে প্রচুর পরিমানে মলিবেডনাম এবং ম্যাঙ্গানিজ পাওয়া যায়। ছোলাতে প্রচুর পরিমাণে ফলেট এবং খাদ্য আঁশ আছে সেই সাথে আছে আমিষ, ট্রিপট্যোফান, কপার, ফসফরাস এবং আয়রণ।

ব্লাড প্রেসারঃ- কাঁচা ছোলার উপকারিতা বলে শেষ করা যাবে না। গবেষণায় জানা গেছে কাঁচা ছোলা খাওয়ার অভ্যাস গড়ে তুললে দেহে পটাশিয়ামের মাত্রা ধীরে ধীরে বাড়তে শুরু করে। এই খনিজটির পরিমাণ যত বাড়ে, সোডিয়ামের মাত্রা ততো নিয়ন্ত্রণে চলে আসবে। তার ফলে ধীরে ধীরে ব্লাড প্রেসার নিয়ন্ত্রণে চলে আসে।

যৌনশক্তিঃ- কাঁচা ছোলা হারানো যৌবন ফিরে পেতে সাহায্য করে। যে সকল পুরুষ ভাইদের যৌন শক্তি কমে গেছে। তারা নিয়মিত কাঁচা ছোলা খেলে আপনার যৌন শক্তি দ্বিগুণ বৃদ্ধি পাবে। এক মুঠো কাঁচা ছোলা সারা রাত ভিজিয়ে রেখে। সকালে খালি পেটে এক মুঠো কাঁচা ছোলা চিবিয়ে খেয়ে নিবেন। নিয়মিত টানা এক সাপ্তাহে খেলে দেখবেন আপনার যৌন শক্তি আগের থেকে দ্বিগুণ বাড়িয়ে যাবে।

রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণঃ- গবেষণায় দেখা গেছে, যে সকল অল্পবয়সী নারী বেশি পরিমাণে ফলিক অ্যাসিডযুক্ত খাবার খান, তাদের হাইপারটেনশনের প্রবণতা কমে যায়। যেহেতু ছোলায় বেশ ভাল পরিমাণ ফলিক অ্যাসিড থাকে সেহেতু ছোলা খেলে রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখা সহজ হয়। এছাড়া ছোলা বয়সসন্ধি পরবর্তীকালে মেয়েদের হার্ট ভাল রাখতেও সাহায্য করে।

রক্ত চলাচলঃ- অপর এক গবেষণায় দেখা গেছে যে যারা প্রতিদিন ১/২ কাপ ছোলা, শিম এবং মটর খায় তাদের পায়ের আর্টারিতে রক্ত চলাচল বেড়ে যায়। তাছাড়া ছোলায় অবস্থিত আইসোফ্লাভন ইস্কেমিক স্ট্রোকে আক্রান্ত ব্যক্তিদের আর্টারির কার্যক্ষমতাকে বাড়িয়ে দেয়।

আরও পড়ুন- ওষুধ ছাড়াই কোলেস্টেরল কমানোর সহজ উপায়

মেরুদণ্ডের ব্যথা দূর করেঃ- এতে ভিটামিন-বি পর্যাপ্ত পরিমাণে আছে। যা মেরুদণ্ডের ব্যথা, স্নায়ুর দুর্বলতা কমাতে সাহায্য করে।

পেশি তৈরি করতেঃ- গুড় এবং ছোলার সংমিশ্রন পেশি শক্তিশালী করতে সহায়তা করে। কারন এতে প্রোটিনের সমৃদ্ধ উপাদান রয়েছে যা পেশী স্বাস্থ্যের জন্য ভালো। গুড় পটাসিয়ামের একটি সমৃদ্ধ উৎস যা পেশি তৈরি করতে সহায়তা করে।

কোলেস্টেরলঃ- ছোলা শরীরের অপ্রয়োজনীয় কোলেস্টেরল কমিয়ে দিতে সাহায্য করে। ছোলার ফ্যাট বা তেলের বেশির ভাগ পলিআনস্যাচুরেটেড ফ্যাট, যা শরীরের জন্য ক্ষতিকর নয়। প্রোটিন, কার্বোহাইড্রেট ও ফ্যাট ছাড়া ছোলায় আরও আছে বিভিন্ন ভিটামিন ও খনিজ লবণ।

কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করেঃ- ছোলায় খাদ্য-আঁশও আছে বেশ। এ আঁশ কোষ্ঠকাঠিন্য সারায়। খাবারের আঁশ হজম হয় না। এভাবেই খাদ্যনালী অতিক্রম করতে থাকে। তাই পায়খানার পরিমাণ বাড়ে এবং পায়খানা নরম থাকে।ফলে হজম শক্তি বৃদ্ধি করে।

রক্তের চর্বি কমায়ঃ- ছোলার ফ্যাটের বেশিরভাগই পলি আনস্যাচুয়েটেড। এই ফ্যাট শরীরের জন্য মোটেই ক্ষতিকর নয়, বরং রক্তের চর্বি কমায়।

অস্থির ভাব দূর করেঃ- ছোলায় শর্করার গ্লাইসেমিক ইনডেক্সের পরিমাণ কম থাকায় শরীরে প্রবেশ করার পর অস্থির ভাব দূর হয়।

শরীরে শক্তির যোগানঃ- শরীরে শক্তির যোগান দিতে থাকে দীর্ঘক্ষণ ধরে। প্রতি ১০০ গ্রাম ছোলা থেকে পাওয়া যায় ৩৬০ ক্যালরিরও অধিক শক্তি।

রোগ প্রতিরোধ করেঃ- কাঁচা ছোলা ভিজিয়ে কাঁচা আদার সঙ্গে খেলে শরীরে আমিষ ও অ্যান্টিবায়োটিকের চাহিদা পূরণ হয়। আমিষ মানুষকে শক্তিশালী ও স্বাস্থ্যবান বানায় এবং অ্যান্টিবায়োটিক যে কোনো অসুখের জন্য প্রতিরোধ গড়ে তোলে।

ক্যান্সার রোধেঃ- কোরিয়ান গবেষকরা তাদের গবেষণায় প্রমাণ করেছেন যে বেশি পরিমাণ ফলিক এসিড খাবারের সাথে গ্রহণের মাধ্যমে নারীরা কোলন ক্যান্সার এবং রেক্টাল ক্যান্সার এর ঝুঁকি থেকে নিজিদেরকে মুক্ত রাখতে পারেন। এছাড়া ফলিক এসিড রক্তের অ্যালার্জির পরিমাণ কমিয়ে এ্যজমার প্রকোপও কমিয়ে দেয়। আর তাই নিয়মিত ছোলা খান এবং সুস্থ থাকুন।

ছোলা অত্যন্ত পুষ্টিকর। এটি আমিষের একটি উল্লেখযোগ্য উৎস। এতে আমিষ মাংস বা মাছের পরিমাণের প্রায় সমান। তাই খাদ্যতালিকায় ছোলা থাকলে মাছ মাংসের প্রয়োজন পরে না। ত্বকে আনে মসৃণতা। কাঁচা ছোলা ভীষণ উপকারী। তবে ছোলার ডালের তৈরি ভাজা-পোড়া খাবার যত কম খাওয়া যায় ততই ভালো। তাই হজমশক্তি বুঝে ছোলা হোক পরিবারের শক্তি।

Related Articles

Popular Now

Categories

ABOUT US

Dainikchorcha.com is a blog where we post blogs related to Web design and graphics. We offer a wide variety of high quality, unique and updated Responsive WordPress Themes and plugin to suit your needs.

Contact us: [email protected]

FOLLOW US