Wednesday, June 23, 2021

আমাকেও গ্রেপ্তার করুন, নাহলে নিজাম প্যালেস ছাড়ব না, সিবিআইকে চ্যালেঞ্জ মুখ্যমন্ত্রীর

বেআইনিভাবে কোনও নোটিশ ছাড়া গ্রেফতার করা হয়েছে ফিরহাদ হাকিম, মদন মিত্র, সুব্রত মুখোপাধ্যায় ও শোভন চট্টোপাধ্যায়কে। তাই তাঁকেও গ্রেফতার করতে হবে। একথা বললেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁকে গ্রেফতার না করা হলে সিবিআই দফতর ছেড়ে তিনি যাবেন না। নিজাম প্যালেসের ১৫ তলায় তিনি বসে রয়েছেন। সিবিআইয়ের তরফে কোনও জবাব এখনও পাওয়া যায়নি।

আজ সকালে গ্রেফতার করা হয় ফিরহাদ হাকিম, মদন মিত্র, সুব্রত মুখোপাধ্যায়, শোভন চট্টোপাধ্যায়রা। ঘটনাটি নিয়ে মোদী সরকারের বিরুদ্ধে সমালোচনা জুড়ে দিয়েছে তৃনমূল। ঘটনাকে কেন্দ্র করে কার্যত তোলপাড় শুরু হয় রাজ্য-রাজনীতি। ঘটনার নেপথ্যে বিজেপি রয়েছে বলেই দাবি করে তৃণমূল। এই গ্রেপ্তারির খবর পাওয়া মাত্রই নিজাম প্যালেসে যান রত্না চট্টোপাধ্যায়, ফিরহাদ হাকিমের কন্যা, কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়-সহ আরও অনেকে।

সাংসদ সৌগত রায় বলেন, ‘মোদী শাহের নির্দেশেই এই গ্রেফতারি। সিবিআই কী বলছে তাতে কিছু যায় আসে না। সিবিআই তো বিজেপির তোতা।’ নিজাম প্যালেসে এসেছেন তৃনমূল সাংসদ তথা আইনজীবী কল্যান বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিকে সিবিআই দফতরের সামনে বিক্ষোভ দেখাচ্ছে মদন অনুগামীরা।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এখনও সিবিআই দপ্তরে অবস্থান করছে। তিনি সাফ জানিয়ে দিয়েছেন, তাঁকেও গ্রেপ্তার করতে হবে। তা নাহলে সিবিআইয়ের দপ্তর থেকে সরবেন না। উল্লেখ্য, যে চার হেভিওয়েটকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে, তাঁদের মধ্যে ৩ জন বিধায়ক। ফলে এই গোটা প্রক্রিয়ায় বিধানসভার অধ্যক্ষের অনুমতির প্রয়োজন। কিন্তু সিবিআইয়ের তরফে এই চার নেতার বিরুদ্ধে তদন্তের জন্য রাজ্যপালের অনুমতি নেওয়া হয়। তারপরই এই গ্রেপ্তারি। এমনকী আগাম কোনও নোটিসও দেওয়া হয়নি বলেই অভিযোগ। ফলে গোটা প্রক্রিয়াই বেআইনি বলে দাবি করা হচ্ছে। তৈরি হয়েছে জটিলতাও।

আরও পড়ুন

টাটকা আপডেট

সবচেয়ে জনপ্রিয় সংবাদ