Wednesday, June 23, 2021

ব্রন দূর করার সহজ প্রাকৃতিক উপায়

ব্রণ হলো মানব ত্বকের একটি দীর্ঘমেয়াদী সাধারন সমস্যা। ছোট বড় প্রায় সব বয়সী মানুষই এই সমস্যাই ভুগে থাকে। এর আক্রান্তের ফলে ত্বকের সৌন্দর্য বদলে যায়। অনেক চেষ্টার পরেও ব্রনর হাত থেকে সহজে মুক্তি পাওয়া যায় না। এর ফলে আমারা হতাশায় ভুগি। আবার অনেকে সমস্যা সমাধানের জন্য ওষুধ বা ক্রিম ব্যবহার করে থাকেন। কিন্তু তাতেও বিভিন্ন পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার ভয় থেকে যায়। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই তৈলাক্ত ত্বকে ব্রন বেশি হয়। ত্বক যাদের বেশি ঘামে এবং ত্বক তেল চিটচিট করে সেইসব ত্বকেই ব্রনের আক্রমণ বেশি হয়। ব্রণ শুধু মুখে নয়, শরীরের অন্যান্য অংশেও হতে পারে। কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া ছাড়াও প্রাকৃতিক উপায়ে এই ধরনের সমস্যা দূর করার উপায় জেনে নিন-

তুলসিপাতার রস:- ব্রনের জন্য তুলসিপাতার রস খুবই একটি উপকারী উপাদান। তুলসিপাতার রস ব্রনের উপর লাগিয়ে কিছুক্ষণ রেখে শুকিয়ে যাওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। এরপর হালকা গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলতে হবে।

কাঁচা হলুদ ও চন্দন গুঁড়ো:- কাঁচা হলুদ ও চন্দনকাঠের গুঁড়ো ব্রণর জন্য খুবই কার্যকর দুটো উপাদান। কাঁচা হলুদ ও চন্দন গুঁড়োর পেস্ট তৈরি করে ব্রন জায়গায় লাগিয়ে কিছুক্ষণ পর শুকিয়ে গেলে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এই মিশ্রণটি ব্রণ দূর করার সঙ্গে ব্রণর দাগও দূর করে। এটি সপ্তাহে ২-৩ দিন ব্যবহার করুন।

আরও পড়ুন- চোখের নিচে কালি কেন হয়? এবং দূর করার খুব সহজ প্রাকৃতিক উপায় জেনে নিন

রসুন:- রসুন ব্রন দূর করতে অত্যন্ত উপকারী। রসুনের মধ্যে থাকা অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল উপাদান যা ব্রনর জীবানুকে বেশি সংক্রমিত হতে দেয়না। তাই রসুন বেটে সাথে পানি মিশিয়ে ব্রনর উপর ১০-১৫ মিনিট লাগিয়ে রেখে ধুয়ে ফেলুন। এতে করে উপকার পাবেন খুব তারাতারি।

মধু:- মধুর আক্রান্ত ত্বকের জন্য খুব উপকারী। এর অ্যান্টিব্যাকটিরিয়াল বৈশিষ্ট্যগুলি প্রদাহ হ্রাস করতে সাহায্য করে। রাতে আক্রান্ত স্থানে দু’এক ফোঁটা মধু লাগান এবং পরদিন সকালে ধুয়ে ফেলুন।

ভিনিগার:- ব্রনর সমস্যায় ভিনিগার ভীষণ উপকারী। তুলোই ভিনিগার লাগিয়ে ব্রনর উপর লাগান। ১০-১৫ মিনিট পর ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

অ্যালোভেরা জেল:- অ্যালোভেরা জেল ব্রন নিরাময়ের জন্য খুবি উপকারী। অ্যালোভেরা জেলে থাকা অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল উপাদান যা ব্রনর ক্ষত থেকে ব্যাকটেরিয়াল সংক্রমন থেকে প্রতিরোধ করে। এবং দ্রুত গতিতে ব্রন নিরাময় করে। মুলাতানি মাটির সাথে অ্যালোভেরা জেল মিশিয়ে ফেসপ্যাক তৈরি করে মুখে লাগান কিছুক্ষন পর শুকিয়ে গেলে ধুয়ে ফেলুন। এছাড়াও অ্যালোভেরা জেল ফ্রিজে রেখে বরফ তৈরি করে ব্রন আক্রান্ত জায়গায় ঘোষুন। এটি সপ্তাহে দু’বার ব্যবহারের ফলে ত্বকে ব্রনর উপদ্রব থেকে মুক্তি পাবেন।

পুদিনা পাতা:- পুদিনা পাতা তৈলাক্ত ত্বক ও ব্রনর সংক্রমন কমাতে গুরুত্বপূর্ণ উপাদান। পুদিনা পাতা বেটে ব্রনর উপর ১০-১৫ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। এছাড়াও পুদিনা পাতার রস নিয়ে ব্রন আক্রান্ত জায়গায় লাগিয়ে ১০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। এতে করে ব্রন সংক্রমন দূর হবে এবং ত্বকের জ্বালাপোড়া ভাব কমবে।

লেবু:- লেবু একটি প্রাকৃতিক ব্লিচ। তুলার বলের সাহায্যে লেবুর রস লাগিয়ে ব্রনের উপর লাগান। এবং কিছুক্ষন পর ধুয়ে ফেলুন। এছাড়াও লেবুর রসের সঙ্গে দালচিনি গুঁড়োর মিশ্রণ তৈরি করে রাতে শোবার আগে ব্রনর উপর লাগিয়ে রাখতে পারেন। এবং সকালে হালকা উষ্ণ পানিতে ধুয়ে ফেলুন।

নিমপাতা:- নিমপাতা ত্বকের জন্য খুব ভালো জীবানুনাশক। তাই ব্রন সারাতে খুবি উপকারী। নিমপাতার মধ্যে থাকা অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল উপাদান যা ব্রন জীবানু থেকে রক্ষা করে। নিমপাতা বেটে সঙ্গে গোলাপ জল মিশিয়ে এই মিশ্রণটিকে ত্বকে লাগিয়ে ১০-১৫ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন ঠাণ্ডা পানি দিয়ে।

ডিম:- ব্রন সারাতে ডিম কার্যকারী উপাদান। তাই ডিমের সাদা অংশ ব্রন আক্রান্ত জায়গায় ম্যাসেজ করে ২০-২৫ মিনিট রাখতে হবে। এটি সপ্তাহে ৩-৪ দিন ব্যবহার করুন।

আরও পড়ুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

টাটকা আপডেট

সবচেয়ে জনপ্রিয় সংবাদ