Wednesday, June 23, 2021

বিজেপিতে যাচ্ছেন শিশির ও দিব্যেন্দু! তুঙ্গে জল্পনা

“অধিকারী পরিবারের জন্যই লোকসভা ভোটে তমলুক আর কাঁথি-তে তৃনমূল জিতেছে। আর জিতবে না। প্রথম হওয়ার কোনও সুযোগ নেই। দ্বিতীয়ই হতে হবে।” মঙ্গলবার নন্দীগ্রামে এক সাক্ষাৎকারে শুভেন্দু অধিকারী এই মন্তব্য করেন। শুভেন্দু অধিকারীর বক্তব্য ঘিরে তৈরি হয়েছে জল্পনা। তাহলে কি শিশির ও দিব্যেন্দু বিজেপিতে যাচ্ছেন? শুভেন্দু এর উত্তর দেননি।

বাবা শিশির এবং ভাই দিব্যেন্দু অধিকারী এখনও তৃণমূলের সাংসদ। তার মধ্যে একজন দলের জেলা সভাপতি। পরিবারের আরেকজন সদস্য স্থানীয় পুরপ্রধান। যদিও শুভেন্দুর দল ছাড়ার পর দিব্যেন্দুর দল ছাড়া নিয়ে জল্পনা শুরু হয়েছিল। তখনই দিব্যেন্দু বলেন, ‘আমি তো আর পাগলা ষাঁড় হয়ে যাইনি। আমার অবস্থান স্পষ্ট।’

শুভেন্দুর সভার পর দাঁতনে পাল্টা সভা করে তৃনমূল। তৃনমূল দাবি করে, একুশের ভোটে দুই মেদিনীপুরের ৩৫টি বিধানসভাই জিতবে তাঁরা রেকর্ড ভোটে। তারই উত্তরে শুভেন্দু বলেন,“ কুড়ির লোকসভা-তে দেখলাম কেমন রেকর্ড হয়েছে। ঝাড়গ্রাম ও মেদিনীপুর সদরে বিজেপি জিতেছে। কেশপুরে বিজেপির ভারতী ঘোষ জিততো, যদি না ভোট কারচুপি হতো।”

এদিন শুভেন্দু অধিকারী নন্দীগ্রাম টেঙ্গুয়া মোড় থেকে নন্দীগ্রাম বাজার পর্যন্ত মিছিল করেন। মিছিল শেষ করে জানকীনাথ মন্দিরে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন। তাঁর সেই বক্তব্যে বারবার হিন্দুত্ব ও সনাতন ধর্মের কথা উঠে আসে।

রাজনৈতিক মহল সূত্রে খবর, গত কয়েক মাসে শুভেন্দু অধিকারীর বক্তব্যে স্পষ্ট নন্দীগ্রাম ও মেদিনীপুরের হিন্দুত্ববাদকে ঘিরেই জিততে চান তিনি। সেই কারনেই ধর্মীয় মিছিল করে নন্দীগ্রাম ঢুকলেন। খোল-করতাল, ‘হরে কৃষ্ণ’ ও ‘জয় শ্রী রাম’ ধ্বনি দিয়ে নতুন দলের হয়ে যাত্রা শুরু করলেন শুভেন্দু।

শুভেন্দুর এই বক্তব্যের জেরে প্রশ্ন উঠেছিল তাহলে কী অধিকারী পরিবারের বাকিরাওদল ছাড়ার প্রস্তুতি নিয়ে ফেলেছেন! যদিও শুভেন্দুর বাবা জানিয়ে দিয়েছিলেন তিনি মমতার সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করতে পারবেন না।

আরও পড়ুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

টাটকা আপডেট

সবচেয়ে জনপ্রিয় সংবাদ